১২ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ করায় বাবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

চিটাগাং মেইল: ফটিকছড়ির ভূজপুর এলাকায় নিজের ১২ বছরের মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনায় বাবাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-৭ এর বিচারক মুনসী আব্দুল মজিদ এ রায় দেন।

আদালত অভিযুক্তকে ৯ (১) ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৩ বছরের কারাদণ্ড দেন। এছাড়া ৯(৪) (খ) ধারায় ৫ বছরের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদণ্ড দেন। দুইটি সাজা একসঙ্গে চলবে বলে রায় দেন আদালত।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-৭ এর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) খন্দকার আরিফুল আলম বলেন, ফটিকছড়ির ভূজপুর এলাকায় নিজের ১২ বছরের মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনায় বাবাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৩ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া পৃথক একটি ধারায় ৫ বছরের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদণ্ড দেন। দুইটি সাজা একসঙ্গে চলবে বলে রায় দেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পিপি খন্দকার আরিফুল আলম জানান, ২০১৯ সালের জুনে বাড়িতে নিজ মেয়েকে ধর্ষণ করেন বাবা। পরে ঘটনা জানতে পারলে মেয়েটির মা নিজে বাদি হয়ে ভূজপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। ২০১৯ সালের অক্টোবরে আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ। ২০২০ সালের মার্চে আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত। মামলায় ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

অ্যাডভোকেট খন্দকার আরিফুল আলম বলেন, বাদি আদালতে আসামির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রত্যাহার করতে আবেদন দিয়েছিলেন। কিন্তু আমরা রাষ্ট্রপক্ষ তা সমর্থণ করিনি। বিষয়টি খুবই জঘন্য ও দুঃখজনক। এই অপরাধের শাস্তি হওয়া প্রযোজন ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*