নিলয় রফিক’র দুইটি কবিতা প্রচ্ছদে ভেতর দেহ

প্রচ্ছদে ভেতর দেহ,জীবন বুনন
স্বপ্নগুচ্ছা জানালায় আকাশে চূড়ায়
আনন্দে সকালে শুভ,উদ্বাস্তু পাহাড়ে
মেঘের আপেলহাসি কবিতার বাড়ি।

দেয়ালে পানিরকল আয়না নির্মল
আড়ালে মদিরাচোখে শীতল পাটির
বামে-ডানে ফলেশোভা ঝিনুক পাড়ায়
নোনাপাতা শেকড়ের সমুদ্রের ঝড়।

মাঝির শিল্পের দৃশ্য পিপাসার পলি
মনে পড়ে দূরে কাছে স্বর্গের মাজারে
খুলে দেখি স্মৃতিলতা ঝরে পড়া ছায়া
বাতাসে সাম্পানে ভাসে হারানো মিছিল।

২-
বিমূর্ত আয়না

দু’যুগে পাথার কেটে পথের সড়ক
ঘামগুলো শব্দফুলে কালের সুরভি
আলোর সকালে ছবি নয়নাভিরাম
মুখে-মুখে সৃষ্টিশিল্প আকাশে অন্তরে।

ঢেউ ঝাঁকে নির্মানের নতুন শৈল্পিক
খোঁজে নেবে বুদ্ধপাঠে ঝাউশোভা মাঠে
হিংসায় জ্বলেপুড়ে করুণা পাত্রের
মূর্খসাধু ভিড়ে-গর্তে করোনা ছড়ায়।

শরীরে মলমঘষে চণ্ডালে চামড়া
বৈশাখি বাতাসে যাও অচেনা গুহায়
পকৃতির স্কুলের ছাত্র,ভেঙে গড়ি চর
বিশুদ্ধ বাতাসে শব্দ বিমূর্ত আয়না।

মহেশখালী কক্সবাজার

One comment

  1. রুদ্র সুশান্ত

    খুব ভালো লাগলো। পড়ে অনেক ভালো লিখেছেন।
    ধন্যবাদ কবি নিল রফিক দাদা।

    মাঝে মাঝে আপনার কিছু লেখা অনেক ভালো লাগে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*